একুশে গ্রেনেড হামলা: বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের মানববন্ধন

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের আইনজীবীরা।রোববার (২১ আগস্ট) সকাল ৯টায় সুপ্রিম কোর্টের প্রধান প্রবেশপথের বিপরীত দিকে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করেন তারা।বিএনপি-জামায়াত জোটের সময় গ্রেনেড হামলায় প্রতিবাদে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের উদ্যোগে।এর আগে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে শহীদ বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আইনজীবীরা।

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা হয়।সেদিন শেখ হাসিনা অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেও আহত হন, ক্ষতিগ্রস্ত হয় তার শ্রবণশক্তি। নিহত হন আওয়ামী লীগের ২২ নেতাকর্মী। আর আহত হন ৫০০ জন। নারকীয় সেই গ্রেনেড হামলার ১৮তম বার্ষিকী আজ।

আজকের এই মানব বন্ধন কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সম্মানিত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন ফকির ও সেক্রেটারি আব্দুল নূর দুলাল, সাবেক সিনিয়র এসিস্টেন্ট সেক্রেটারি ব্যারিস্টার সাফায়াত সুলতানা রুমি সহ বঙ্গবন্ধু আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ।

এ সময় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ বলেন,১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট, এ দুই হত্যাকাণ্ড একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা। ২১ আগস্ট যখন গ্রেনেড হামলা হয়েছে, তখন ক্ষমতায় ছিল বিএনপি-জামায়াত। হাওয়া ভবনের পরিকল্পানায় তারেক রহমানের নির্দেশে হামলা করে তারা। এ ঘটনার মাস্টারমাইন্ড তারেক রহমান এ কথা অস্বীকার করার উপায় নেই। এটা প্রচলিত আদালতে প্রমাণিত হয়েছে, জনতার আদালতে প্রমাণিত, ইতিহাসের আদালতেও প্রমাণ হবে।

scroll to top