সংবিধান প্রবর্তন ও সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী ১৭-১৮ ডিসেম্বর!

বাংলাদেশের সংবিধান ও সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে চলতি বছরব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

এর অংশ হিসাবে আগামী ১৭ ও ১৮ ডিসেম্বর দুই দিনব্যাপী যথাক্রমে সংবিধান প্রবর্তন ও সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে।প্রথম দিন ১৭ ডিসেম্বরের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। দ্বিতীয় দিন ১৮ ডিসেম্বর প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এমন তথ্য জানিয়েছেন।সংবিধান ও সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের বিষয়ে দিক-নির্দেশনা প্রদান এবং অনুষ্ঠানসমূহ সার্বিক তত্ত্বাবধায়নের জন্য প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে ২২ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতি, অ্যাটর্নি জেনারেল, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের সমন্বয়ে এ কমিটি গঠন করা হয়।সংবিধান প্রবর্তনের সুবর্ণজয়ন্তী

১৯৭২ সালের ১৬ ডিসেম্বর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান প্রবর্তন হয়। সংবিধান প্রবর্তনের সুবর্ণজয়ন্তীতে আগামী ১৭ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

প্রধান বিচারপতির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। অনুষ্ঠানে সম্মানীয় অতিথি থাকবেন শ্রীলঙ্কার প্রধান বিচারপতি জয়ানথা জয়সুরিয়া পিসি। বিশেষ অতিথি থাকবেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী

১৯৭২ সালের ১৮ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট প্রতিষ্ঠিত হয়। সুপ্রিম কোর্টের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ১৮ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে ৩টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

এতে প্রধান বিচারপতির সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশেষ অতিথি থাকবেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি মুকেশকুমার রাসিকভাই শাহ।

scroll to top