মেছড়া ইউপির ভোট তদন্তের নির্দেশ, রিটের শুনানি মুলতবি!

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মেছড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একটি কেন্দ্রের ফলাফল তদন্তের নির্দেশ সংক্রান্ত রিটের শুনানি এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি করেছেন হাইকোর্ট।

ওই ইউপি নির্বাচনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের করা এক আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি জিনাত হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান রিটকারীর আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।এই আইনজীবী কোর্ট নিউজ 24 কে জানান, মেছড়া ইউপি নির্বাচনের একটি ভোটকেন্দ্রের ফলাফল তদন্ত করতে নির্দেশ দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। এ বিষয়টি আদালতে উপস্থাপন করেছি। পরে আদালত রিটের শুনানি এক সপ্তাহের জন্য স্ট্যানওভার (মুলতবি) করেছেন। তদন্ত আশানুরুপ না হলে আমরা পরবর্তী আইনি পদক্ষেপে যাবো।

রিটের বিবরণ থেকে জানা যায়, মেছড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩৬৫ ভোটে বিজয়ী হন স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। পরবর্তীতে ফলাফল পরিবর্তন করে ২২৪ ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করা হয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল মজিদকে। এমন ফলাফল চ্যালেঞ্জ করে চলতি সপ্তাহে রিট করেন জাহাঙ্গীর আলম। গত ৫ জানুয়ারি ওই ইউপিতে ভোট অনুষ্ঠিত হয়।পরে শুক্রবার জাহাঙ্গীর আলম এক সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং ও প্রিসাইডিং কর্মকর্তা বিশেষ গোষ্ঠীর প্রভাবে নৌকার প্রার্থী আব্দুল মজিদকে বিজয়ী করতে ফলাফল কারসাজির নাটক করেছেন। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তেঘরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষে বুধবার সন্ধ্যায় প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এশারত আলীর প্রাথমিক ঘোষণায় নৌকার প্রার্থী আব্দুল মজিদ পান ১৮৫ ভোট, জাহাঙ্গীর আলম (চশমা) পান ৪২৯ ভোট। তেঘরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র বাদে ওই ইউনিয়নের ১০টি কেন্দ্রের প্রাথমিক ফলাফলে নৌকার প্রার্থী আব্দুল মজিদ পান দুই হাজার ৭৩১ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম পান দুই হাজার ৮৫২ ভোট। ফলাফলে ৩৬৫ ভোটের ব্যবধানে সেদিন বিজয়ী হন জাহাঙ্গীর আলম।কিন্তু প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এশারত আলীর দ্বিতীয় তালিকাসহ রিটার্নিং কর্মকর্তার বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার চূড়ান্ত ঘোষণায় মেছড়ায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল মজিদ পান তিন হাজার ৫০৫ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম পান তিন হাজার ২৮১ ভোট। এরমধ্যে তেঘরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা ৭৭৪ ভোট এবং চশমা ৪২৯ ভোট। সংশোধিত তালিকা অনুযায়ী নৌকার প্রার্থী আব্দুল মজিদ ২২৪ ভোটে বিজয়ী দেখানো হয়ে। এমন ঘোষণায় জাহাঙ্গীর আলম সংক্ষুব্ধ হয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন। প্রতিকার না পেয়ে পরবর্তীতে হাইকোর্টে রিট করেন।

scroll to top